শ.ম.গফুর,উখিয়া,কক্সবাজারঃ

কক্সবাজারের উখিয়ার হলদিয়া পালং ইউনিয়নের রুমখা বউবাজারের পশ্চিম বড়ুয়া পাড়া এলাকায় বিয়ের ১ মাসের মাথায় সুবর্ণ বড়ুয়া (২৩) নামের এক নববধূর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।সে প্রবাসী টিপু বড়ুয়ার স্ত্রী।

গত শুক্রবার এ ঘটনা ঘটে। গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় লাশ দেখতে পায় পুলিশ। ঘটনার পরপরই প্রবাসী স্বামী টিপু বড়ুয়া পলাতক রয়েছে।জানা গেছে, উপজেলার হলদিয়া পালং ইউনিয়নের রুমখা পশ্চিম বড়ুয়া পাড়া গ্রামের জিনাংশু বড়ুয়ার ছেলে বাহরাইন প্রবাসী টিটু বড়ুয়া (২৭)’র সাথে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম বড়ুয়া পাড়া গ্রামের দুলাল বড়ুয়ার মেয়ের সাথে গত এক মাস আগে উভয় পক্ষের সম্মতিক্রমে পারিবারিক ভাবে বিবাহ অনুষ্টান সম্পন্ন হয়। বিয়ের এক মাস যেতে না যেতেই সুবর্ণ বড়ুয়া (২৩) রহস্যজনক কারণে ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করতে বাধ্য হয়েছে।নিহতের চাচা সুমন বড়ুয়া বলেন, আমার ভাতিজি সুবর্ণ বড়ুয়াকে তার স্বামী টিটু বড়ুয়া হত্যা করেছে। ভাতিজি হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত টিটু বড়ুয়াকে গ্রেপ্তার পূর্বক জিজ্ঞাসাবাদ করলে হত্যাকান্ডের মূল রহস্য উদঘাটন হবে বলে তিনি দাবী করেন।নিহত সুবর্ণ বড়ুয়ার পিতা দুলাল বড়ুয়া, তার মেয়ের হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত স্বামী টিটু বড়ুয়াকে গ্রেপ্তারের দাবী জানান।হলদিয়া পালং ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ইমরুল কায়েস চৌধুরী, ফাঁসিতে ঝুলে প্রবাসীর স্ত্রী আত্নহত্যার ঘটনা শোনেছি, এবং পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে গেছে বলে তিনি জানান।