ঝিনাইদহে গ্রাম্য শালিসে মারধরের পরে যুবকের মৃত্যু


coxmorning প্রকাশের সময় : ফেব্রুয়ারী ১৫, ২০২১, ৫:২৪ অপরাহ্ন /
ঝিনাইদহে গ্রাম্য শালিসে মারধরের পরে যুবকের মৃত্যু

কক্সমর্নিং ডেস্কঃ  

ঝিনাইদহ সদর উপজেলার পাকা গ্রামে শালিসে মারধর করার দুই দিন পর সোমবার দুপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইমরান হোসেন (২২) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। তিনি ওই গ্রামের আব্দুল মালেকের ছেলে। এ ঘটনায় পুলিশ অভিযান চালিয়ে মামলার ১নং আসামী একই গ্রামের কামরুল ইসলামকে গ্রেফতার করেছে।

 এলাকাবাসী সুত্রে জানা গেছে, গত শনিবার পাকা গ্রামের এক শিশু অপহরণ নিয়ে ওই গ্রামের লোকজন শালিস বৈঠকে বসে। একপর্যায়ে শালিসে বসা লোকজন ঘোড়শাল ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের নেতা খান সিদ্দিকুর রহমান ও চেয়ারম্যান পারভেজ মাসুদ মিল্টন গ্রুপে বিভক্ত হয়ে গ্রাম্য সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। সংঘর্ষ চলাকালীন চেয়ারম্যান গ্রুপের লোকজনের লাঠির আঘাতে সিদ্দিকুর গ্রুপের ইমরান গুরুতর আহত হয়। প্রথমে তাকে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ও পরে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে দুইদিন চিকিৎসাধীন থাকার পর আজ সোমবার তার মৃত্যু ঘটে।

এ ঘটনায় আগেই ৩ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো ৬ জনের বিরুদ্ধে ঝিনাইদহ সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন নিহত ইমরানের দাদা হাফিজুর রহমান।

ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি মিজানুর রহমান নিহতের ঘটনা সত্যতা স্বীকার করে জানিয়েছেন আসামিদের একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি আসামীদের গ্রেফতারের জন্য অভিযান চলমান রয়েছে।

 

 

কক্সমর্নিং-শহীদুল ইসলাম সোহাগ