প্রাণদণ্ডের ভীতি বা কারাদণ্ডের ভীতি সমাজে অপরাধ কমাতে পারেনা


coxmorning প্রকাশের সময় : জুন ৩, ২০২১, ৭:৩৫ অপরাহ্ন /
প্রাণদণ্ডের ভীতি বা কারাদণ্ডের ভীতি সমাজে অপরাধ কমাতে পারেনা

গ্রাম থেকে মহানগর, সাধারণ জনগণ থেকে শুরু করে মন্ত্রী কেউ-ই বাদ পড়ছেননা ছিনতাইয়ের কবল থেকে, যা আইনের চরম অবহেলা।

অপরাধ যতই অমানবিক হউক, তাহার বিচার হইতে হইবে মানবিক, কল্যাণকামী, পরিবর্তনে আস্থাশীল। কারাগারগুলিকে ‘সংশোধনাগার’ বলিলেও, তাহার অভ্যন্তরে অপরাধ কম নহে,কারাগার হতে অপরাধের ক্রাইটেরিয়া শিখে এসে ত্রাসে পরিনত হয়। অতএব কারাদণ্ডে যে প্রায়শই হিতে বিপরীত হয়, প্রাণদণ্ডের ভীতি বা কারাদণ্ড ভিতি সমাজে অপরাধ কমাইতে পারে না, তাহা প্রমাণিত। অপরাধ কমাইতে হইলে অপরাধের প্রবণতা কমাইতে হইবে। কঠোরতার আঘাত অন্তরকে আরও বিক্ষুব্ধ, হিংস্র করে। যাহা অপরাধীর জীবনে উত্তরণ আনিবে, তাহাই উপযুক্ত শাস্তি। তাই মামলার দ্রুত নিষ্পত্তি, বিচারের স্বচ্ছতা, সুষ্ঠু তদন্ত ইত্যাদি উপযুক্ত পদক্ষেপের মাধ্যমে অপরাধ প্রবণতা কমাতে পারে।সমাজে নৈতিকতার অবক্ষয়ের দিকে চোখ না দিয়ে শুধুই যেখানে টাকা সেখানেই দৌড় ঝাপ, এই যদি হয় কার্যনির্বাহী, জাতির বিবেকদের চিন্তা তবে কেন রসাতলে যাবেনা শৃঙ্খলা? অনিয়মই যেখানে নিয়ম, অযোগ্যরাই চালিকা শক্তির মুল হাতিয়ার সেখানে দন্ডের কোন মানদণ্ড হয়না।

 

 

 

কক্সমর্নিং-সোহাগ