জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী প্রেরণকারী দেশ হিসেবে আবারো শীর্ষে বাংলাদেশ

প্রকাশিত: ৯:৫১ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৩, ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক :   আবারো জাতিসংঘে শান্তিরক্ষী প্রেরণকারি দেশ হিসেবে প্রথম হয়েছে বাংলাদেশ, জানিয়েছে আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর-আইএসপিআর। এদিকে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মেজর জেনারেল মো. মাঈন উল্লাহ চৌধুরী সাউথ সুদানের জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনের ডেপুটি ফোর্স কমান্ডার হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন।

শনিবার আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর আইএসপিআর এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, ৬ হাজার ৭শ ৩১ জন শান্তিরক্ষী প্রেরণের মাধ্যমে জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী প্রেরণকারী দেশ হিসেবে বাংলাদেশ আবারো প্রথম স্থান অর্জন করেছে।
১৯৭০ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকেই জাতিসংঘের শান্তি রক্ষা অপারেশনের অংশ হিসাবে একাধিক দেশে সক্রিয়ভাবে জড়িত রয়েছে। বাংলাদেশ সেনাবাহিনী প্রায় পঁচিশটি দেশে ত্রিশটিরও বেশি মিশনে অংশ গ্রহণ করেছে। এছাড়া জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা পরিসংখ্যান দেখা যায়, চলতি বছর আগস্ট পর্যন্ত বাংলাদেশ মিশনের ৬শ ৪৪ জন সদস্য, ২৯টি ইউএনএমইএম (UNMEM)-মিশনে জাতিসংঘের সামরিক বিশেষজ্ঞ, ৫ হাজার ৯৪৩ সশস্ত্র বাহিনী সেনা এবং ১১৫ জন কর্মচারী বিভিন্ন মিশনে বর্তমানে মোতায়েন রয়েছে এদের মধ্যে ২৫৫ জন বাংলাদেশী নারী শান্তিরক্ষী রয়েছেন।

বর্তমানে পৃথিবীর ১১৯ টি দেশ থেকে জাতিসংঘের ১৩টি শান্তিরক্ষী মিশন এবং অন্যান্য মিশনসহ মোট ২১টি মিশনে পুলিশ ও সেনাবাহিনীর সমন্বয়ে ৮১৮২০ জন শান্তিরক্ষী কাজ করছে। তাদের মধ্যে ৬৬৬২ জন শান্তিরক্ষী প্রেরণ করে ইথিওপিয়া দ্বিতীয়, ৬৩২২ জন শান্তিরক্ষী প্রেরণ করে রুয়ান্ডা তৃতীয় এবং ৫৬৮২ জন শান্তিরক্ষী প্রেরণ করে নেপাল চতুর্থ অবস্থানে রয়েছেন।।

যে সকল দেশের মিশনে বাংলাদেশ অংশগ্রহণ করেছে এর মধ্যে রয়েছে, নামিবিয়া, কাম্বোডিয়া মধ্যে, সোমালিয়া, উগান্ডা, রুয়ান্ডা, মোজাম্বিক, প্রাক্তন যুগোস্লাভিয়া, লাইবেরিয়া, হাইতি, তাজিকিস্তান, পশ্চিম সাহারা, সিয়েরা লিয়ন, কসোভো, জর্জিয়া, পূর্ব তিমুর, কঙ্গো, আইভরিকোস্ট এবং ইথিওপিয়া।
এদিকে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মেজর জেনারেল মো. মাঈন উল্লাহ চৌধুরী সাউথ সুদানের জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনের ডেপুটি ফোর্স কমান্ডার হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি ডেপুটি ফোর্স কমান্ডার নির্বাচিত হওয়ায় জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশনে প্রভাব খাটানোর ক্ষেত্রে বাংলাদেশের অবস্থান দৃঢ় হয়েছে।